জিয়ার দেশীয় কর্মসুচি

 (২২/0/২০১৮ প্রথম আলো, মহিউদ্দিন আহমেদ  

বাহাত্তর সালে ব্যক্তিগত বিনিয়োগের সিলিং ছিল ১৫ লাখ টাকা। পরে শহীদ জিয়াউর রহমানের সরকার এসে এটা বাড়াতে বাড়াতে অনির্দিষ্ট পর্যায়ে নিয়ে যায়।  অর্থাৎ ধাপে ধাপে আমরা ব্যক্তিপুঁজির বিকাশের ধারায় হাঁটতে থাকলাম। এই ব্যক্তিগত পুঁজি না বাড়ালে বিনিয়োগ কিংবা ব্যবসায় আজকের বাংলাদেশ এতদূর এগিয়ে যেত না।   

 

() ১৯৮১ সালে জিয়াউর রহমানের আমলে ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক বিধি করা হয় যার ফলে আজকে লক্ষ লক্ষ সাধারণ ও চাকরিজীবী পেনশনাররা ডাকঘরে সঞ্চয় করে সঞ্চয়ের মুনাফা দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছে। 

 

()১৯৮১ সালে জিয়াউর রহমানের আমলে ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড চালু করা হয় যার ফলে আজকে লক্ষ লক্ষ প্রবাসীরা দেশীয় কিংবা বিদেশী মুদ্রায় সঞ্চয় করে একদিকে সঞ্চয়কারীরা মুনাফা পাচ্ছেন অন্যদিকে দেশে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা জমা হচ্ছে।

 

() ১৯৮১ সালে জিয়াউর রহমানের আমলে গার্মেন্টস শিল্প চালু করে আজকে লক্ষ লক্ষ মানুষের চাকরি এবং অন্যদিকে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার আয়ের অন্যতম খাত এই শিল্প 

 

()  ( )  ১৯৭৭ সালের ৭ জানুয়ারী জিয়াউর রহমানের আমলে বাংলাদেশে ক্রিকেটের জন্ম হয়।  ঐদিন বাংলাদেশ মেরিলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) বিপক্ষে প্রথম ক্রিকেট খেলতে নামে। প্রয়াত শামীম কবীর ছিলেন এর অধিনায়ক এবং রকিবুল হাসান ছিলেন সহ-অধিনায়ক।

 

() ১৯৭৯ সালে জিয়াউর রহমানের সময়ে বাংলাদেশ প্রথম আইসিসি ট্রফি খেলে