সেক্টর ভিত্তিক যুদ্ধ

                       

যুদ্ধের মহানায়করা                     

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীকে (মুক্তি বাহিনী নয়) যুদ্ধের জন্য বিভিন্ন  ভৌগলিক অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়েছিল। এই ভৌগোলিক অঞ্চলগুলি নিয়ে  ১১টি  সেক্টর তৈরী করা হয়েছিল। প্রতিটি সেক্টরের একজন করে সেক্টর কমান্ডার ছিলেন I সেক্টর  কমান্ডাররা সামরিক অভিযানের নির্দেশনা দিয়েছেন।  তাদের সাব-সেক্টর কমান্ডারদের অধীনে বেশ কয়েকটি সাব-সেক্টরের মাধ্যমেও সমন্বিত সেনা বেসামরিক প্রতিরোধ যোদ্ধাদের সাথে নিয়ে  লড়াই করেছিলেন।

 

সেক্টর ও সাব-সেক্টর কমান্ডারদের তালিকা:

 

সেক্টর নং

সেক্টর অঞ্চল

সেক্টর কম্যান্ডার

সাব-সেক্টর কম্যান্ডার 

যুদ্ধের পরে কে কোথায়

চট্রগ্রাম, পার্বত্য চট্রগ্রাম, নোয়াখালীর জেলার সমস্ত পূর্বাঞ্চল

() মেজর জিয়াউর রহমান (১০/০৪/৭১১৫ মে ১৯৭১)

() ক্যাপ্টেন রফিকুল ইসলাম (১০/০৬/১৯৭১/০৪/১৯৭২)

 

() রিশিমুখঃ ক্যাপ্টেন শামসুল ইসলাম () শ্রিনগরঃ ক্যাপ্টেন মতিউর রহমান ()মনুঘাট ক্যাপ্টেন মাহফুজুর রহমান

()তবলছরিঃসার্জেন্ট আলী হোসেন

() মেজর জিয়াউর রহমান (বিএনপি)

()ক্যাপ্টেন রফিকুল ইসলাম (আওয়ামীলীগ)

ঢাকা, কুমিল্লা, ফরিদপুর জেলা ও নোয়াখালী জেলার পূর্বাঞ্চল ছাড়া বাকি অংশ

() মেজর খালেদ মোশাররফ (১০/০৪/৭১২২/০৯/৭১ () মেজর এ টি এম হায়দার (২২/০৯/৭১০৬/০৪/৭২)

()গঙ্গাসাগর, আখাউরা ও খসবাঃ মাহবুবুর রহমান, লেফটেন্যান্ট ফারুক ও লেফটেন্যান্ট হুমায়ুন কবির () মান্দাভবঃ ক্যাপ্টেন আব্দুল হামিদ () শালদা নদিঃ মাহমুদ হাসান ()মাটিনগর:লেফটেন্যান্ট দিদারুল আলম () নিরভয়পুরঃ  ক্যাপ্টেন আকবর ও লেফটেন্যান্ট মাহবুব () রাজনগরঃ ক্যাপ্টেন জাফর ইমাম,ক্যাপ্টেন শহিদ ও লেফটেন্যান্ট ইমামুজ্জামান

() নগরকান্দাঃ সৈয়দ আব্দুল হালিম    

()মেজর খালেদ মোশাররফ (আওয়ামীলীগ)

() মেজর এ টি এম হায়দার (কোন দল করেননি

চুড়ামনকাটি (শ্রীমঙ্গলের কাছে, উত্তরে সিলেট ও দক্ষিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

() মেজর কে এম শফিউল্লাহ (১০/০৪/৭১২১/০৭/৭১ ()ক্যাপ্টেন এ এন এম নুরুজ্জামান (২৩/০৭/৭১০৬/০৪/৭২

()আসরামবাড়ি ও বাঘাইবারিঃ ক্যাপ্টেন আজিজ ও  ক্যাপ্টেন এজাজ ()হাতকাটাঃ  ক্যাপ্টেন মতিউর রহমান () শিমলাঃক্যাপ্টেন মতিন ()পঞ্চবাটি  ক্যাপ্টেন নাসিম () মনতলা ও বিজয়নগরঃ  ক্যাপ্টেন এম এস এ ভূঁইয়া ()কালাছরাঃ লেফটেন্যান্ট মজুমদার () কলকলিয়াঃ লেফটেন্যান্ট গোলাম হেলাল মোরশেদ ()বামুটিয়া লেফটেন্যান্ট সৈয়দ 

 

উত্তরে হবিগঞ্জ জেলা থেকে দক্ষিনে কানাইঘাট থানা

মেজর চিত্ত রঞ্জন দত্ত (১০/০৪/৭১০৬/০৪/৭২ ও ক্যাপ্টেন এ রব

() জালাজপুরঃ এম আর সাদি () বারপুঞ্জিঃ বাব্রুল হুসেন বাবুল,ক্যাপ্টেন ক্যাপ্টেন এ রব ও লেফটেন্যান্ট আমিরুল হক চৌধুরী () আমলাসিদঃ লেফটেন্যান্ট জহির () কুকিতালঃ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট কাদের ও  ক্যাপ্টেন শরিফুল হক () কৈলাস শাহারঃ লেফটেন্যান্ট ওয়াকিউজ্জামান ও সুবেদার মেজর ফজলুল হক চৌধুরী

 

সিলেটের দুরগাপুর থেকে ডাউকি এবং ভারতীয় বর্ডারের পূর্বাংশের পুরা এলাকা  

মেজর মীর শওকত আলী (১০/০৪/৭১০৬/০৪/৭২

() মুক্তাপুরঃ ক্যাপ্টেন কাজী ফারুক আহমেদ ও

ক্যাপ্টেন মতিউর রহমান ()ডাউকি সুবেদার মেজর বি আর চৌধুরী () শেলাঃ ক্যাপ্টেন হেলাল ()ভোলাগঞ্জ লেফটেন্যান্ট তাহেরুদ্দিন আখঞ্জি () বালাটসার্জেন্ট গনি, ক্যাপ্টেন সালাহউদ্দিন ও এনামুল হক চৌধুরী ()বড়ছড়া ক্যাপ্টেন মুসলিম উদ্দিন () সংগ্রাম পুঞ্জিঃ ক্যাপ্টেন আব্দুল মুতালিব  

 

 

 

 

রংপুর জেলা ও দিনাজপুর জেলার কিছু অংশ

উইং কমান্ডার  এম খাদেমুল বাশার (১০/০৪/৭১০৬/০৪/৭২

()ভজনপুর ক্যাপ্টেন নজরুল, ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট সদরুদ্দিন ও ক্যাপ্টেন শাহরিয়ার ()পাটগ্রাম  ক্যাপ্টেন মতিউর রহমান () সাহেবগঞ্জঃ  ক্যাপ্টেন নওয়াজেশ উদ্দিন () ফুলবাড়ি কুরিগ্রামঃ ক্যাপ্টেন আবুল হুসেন (মোঘলহাট: ক্যাপ্টেন দেলোয়ার ()চিলাহাটি: ফ্লাইট   লেফটেন্যান্ট ইকবাল   

 

রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া ও দিনাজপুরের কিছু অংশ

() মেজর নাজমুল হক ১০/০৪/৭১২৭/০৯/৭১ () মেজর কাজী নুরুজ্জামান (৩০/০৯/৭১০৬/০৪/৭২ () সুবেদার মেজর আব্দুর রব 

() মালানঃ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর () তপনঃ মেজর নাজমুল হক () মেহেদিপুরঃসুবেদার ইলিয়াস ও  ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর () হামজাপুরঃ ক্যাপ্টেন ইদ্রিস () শেখ পারাঃ ক্যাপ্টেন রশিদ

 

১৯৭১ সালের এপ্রিলে ছিল কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, ফরিদপুর ও পটুয়াখালী পরে মে মাস থেকে কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, সাতক্ষীরা ও ফরিদপুরের উত্তরাংশ নিয়ে ছিল 

() মেজর আবু উসমান চৌধুরী (১০/০৪/৭১১৭/০৭/৭১ () মেজর আবুল মঞ্জুর (১৪/০৮/৭১০৬/০৪/৭২  

() বয়রাঃ ক্যাপ্টেন খন্দকার নাজমুল হুদা () হাকিমপুরঃ ক্যাপ্টেন শফিক উল্লাহ () ভোমরাঃ ক্যাপ্টেন সালাউদ্দিন ও ক্যাপ্টেন শাহাবুদ্দিন () লালবাজারঃ  ক্যাপ্টেন এ আর আযম চৌধুরী () বনপুরঃ ক্যাপ্টেন মুস্তাফিজুর রহমান () বেনাপুলঃ ক্যাপ্টেন আব্দুল হালিম ও ক্যাপ্টেন তাওফিক এলাহি চৌধুরী () শিকারপুরঃ ক্যাপ্টেন তাওফিক এলাহি চৌধুরী ও লেফটেন্যান্ট জাহাঙ্গীর

 

বরিশাল, পটুয়াখালী, খুলনার কিছু অংশ ও ফরিদপুর

() মেজর এম এ জলিল (১৭/০৭/৭১২৪/১২/৭১  () মেজর এম এ মঞ্জুর () মেজর জয়নাল আবেদিন

() বরিশালঃ এসিষ্টেন্ট এডজুটেন্ট অব আনসার এন্ড ভিডিপি ফকির আব্দুল মাজেদ () পটুয়াখালীঃ আব্দুস সালাম মিয়া

 

১০

আই সেক্টর ছিল নৌবাহিনী কমান্ডোদের অঞ্চল

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর হেড কোয়াটারের কম্যান্ডার

কেউ না

 

১১

ময়মনসিংহ, টাংগাইল, রংপুরের কিছু অংশ, গাইবান্ধা, উলিপুর, কামালপুর ও ছিলামারি 

() মেজর জিয়াউর রহমান (২৬/০৬/৭১১০/১০/৭১  () মেজর আবু তাহের (১০/১০/৭১০২/১১/৭১ অন্তর্বর্তী কালীন ()স্কোয়াড্রন লীডার এম হামিদুল্লাহ খান (০৩/১১/৭১০৬/০৪/৭২

() মাণকাড়ছড়ঃ স্কোয়াড্রন লীডার এম হামিদুল্লাহ খান () মাহেন্দ্রাগঞ্জঃ ক্যাপ্টেন আবু তাহের ও লেফটেন্যান্ট মান্নান () পুরাখাসিয়াঃ লেফটেন্যান্ট হাশেম () ঢালুঃ লেফটেন্যান্ট তাহের ও লেফটেন্যান্ট কামাল () রাংরাঃ মতিউর রহমান

১৯৭৮ সালের সেপ্টেম্বরে হামিদুল্লাহ খান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপিতে) যোগ দিয়েছিলেন। ১৯৭৮ সালে বিএনপির প্রথম কাউন্সিলের সময় হামিদুল্লাহ খানকে কার্যনির্বাহী সচিব পদসহ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির প্রথম আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নিযুক্ত করা হয়েছিল।  তিনি ১৯৭৯, ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালে বিএনপি মনোনীত এমপি ছিলেন